খুন করার ভয় দেখিয়ে মেয়েকে দু’বছর ধরে ধর্ষণ, অভিযোগ সৎ বাবার বিরুদ্ধে

সুশান্ত ঘোষ, আমাদের ভারত, উত্তর ২৪ পরগনা, ১২ জানুয়ারি: মেয়েকে দীর্ঘ দু’বছর ধরে লাগাতার শারীরিক অত্যাচার করে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠল সৎ বাবার বিরুদ্ধে। আর এই ঘটনায় উত্তেজনা ছড়ায় এলাকাতে। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর ২৪ পরগনার বনগাঁর দেবগড় এলাকায়। অভিযুক্ত বাবা পেশায় দিনমজুর৷ অভিযোগ, প্রতিদিন কাজ সেরে মদ খেয়ে বাড়ি আসত অভিযুক্ত সৎ বাবা। এরপর হাতে দা বা বঁটি নিয়ে তার স্ত্রী ও মেয়েকে খুন করার ভয় দেখিয়ে মেয়েকে ধর্ষণ করত বলে অভিযোগ।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায় যে, অভিযুক্ত বাবা তার প্রাপ্তবয়স্ক মেয়েকে মদপ্য অবস্থায় প্রায় দুই বছর ধরে ধর্ষণ করে যাচ্ছিল। স্ত্রী ও মেয়েকে খুন করার ভয় দেখিয়ে প্রতি রাতে তার মেয়েকে নিয়ে ঘরের মধ্যে ঘুমাতে যেত সে। অভিযুক্তের স্ত্রী অর্থাৎ যুবতীর মা তার অপর বাচ্চাদের নিয়ে ভয়ে বাইরে ঘুমাতো। স্বামীর অত্যাচার আর অশান্তির ভয়ে সে কাউকে সেই ঘটনা জানাতে সাহস পেত না। প্রতিবেশীরাও বিষয়টি এতদিন জানতে পারেনি। কিন্তু বর্তমানে বেশ কিছুদিন অশান্তি ও বিবাদ বাড়তে থাকায় সন্দেহ হয় প্রতিবেশীদের। পাড়া পড়শিরা খোঁজ খবর করতেই বিষয়টি সামনে আসে। উত্তেজনা ছড়াতে থাকে এলাকায়। সোমবার রাতে মেয়ে নিজেই বনগাঁ থানার দ্বারস্ত হয়। ঘটনার পর অভিযুক্ত বাবা এলাকা থেকে পালিয়ে যায়। অভিযোগ পাওয়ার পর ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে বনগাঁ থানার পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *