কালিয়াগঞ্জে ফ্লেক্সে বিজেপি প্রার্থীর নাম, অভিযোগ দায়ের থানায়

স্বরূপ দত্ত, উত্তর দিনাজপুর, ২৪ জানুয়ারি: সদ্য তৃণমূল ত্যাগী কার্তিকচন্দ্র পালকে বিজেপি প্রার্থী উল্লেখ করে কালিয়াগঞ্জের রাস্তায় লাগানো হল ফ্লেক্স। সেই কান্ড গড়াল থানা পর্যন্ত। শনিবার সকালে কালিয়াগঞ্জ শহরের পাশাপাশি গ্রামাঞ্চলেও বিজেপি প্রার্থী হিসেবে কার্তিকচন্দ্র পালের নাম ও ছবি দিয়ে ফ্লেক্স দেখা যায়। সৌজন্যে, উল্লেখ করে কালিয়াগঞ্জের বিজেপির দুই পরিচিত মুখ অমিত সাহা ও গৌরাঙ্গ দাসের নাম ছিল এই ফ্লেক্সে। এই ফ্লেক্স সামনে আসতেই শুরু হয় বিজেপির অন্দরে তোলপাড়।

এই ফ্লেক্স কান্ডে চক্রান্তের অভিযোগ তুলে শনিবার কালিয়াগঞ্জ থানায় আলাদা আলাদা ভাবে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন বিজেপি নেতা অমিত সাহা ও কার্তিকচন্দ্র পাল। বিজেপির তরফেও আলাদা ভাবে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করা হবে বলে জানানো হয়েছে। কার্তিকচন্দ্র পালকে কালিয়াগঞ্জ বিধানসভা আসনে বিজেপি প্রার্থী উল্লেখ করে গৌরিক অভিনন্দন জানিয়ে লাগানো এই ফ্লেক্স ঘিরে চাপানউতোর শুরু হয়েছে বিজেপি ও তৃণমূলের মধ্যে। এই ফ্লেক্স কান্ডের পেছনে তৃণমূলের চক্রান্ত রয়েছে বলে দাবি বিজেপির। উল্টোদিকে তৃণমূলের দাবি এই ঘটনা বিজেপির আদি-নব্যেরর কোন্দলের ফসল।

বিজেপির কালিয়াগঞ্জ বিধানসভার আহ্বায়ক রানাপ্রতাপ ঘোষ বলেন, এই ঘটনার পেছনে তৃণমূলের চক্রান্ত আছে বলে অনুমান। নরেন্দ্র মোদীর প্রতি আস্থা রেখে কার্তিক পাল বিজেপিতে যোগদানের ফলে তৃণমূল কালিয়াগঞ্জে দূর্বল হয়ে পড়েছে। এই অবস্থায় এসব করে তৃণমূল চেষ্টা করছে বিজেপির মধ্যে ফাটল ধরানোর। নানাভাবে চাপ সৃষ্টি করে কার্তিক পালকে ফের তৃণমূলে ফেরানোর জন্যই এসব কান্ড ঘটানো হচ্ছে বলে অভিযোগ বিজেপির।

অন্যদিকে কালিয়াগঞ্জের তৃণমূল বিধায়ক তপন দেবসিংহ বলেন, এসব বিজেপির অভ্যান্তরিন বিষয়। সারা বাংলায় এখন চলছে বিজেপির আদি-নব্য লড়াই। এটা তেমনি ঘটনা। বিজেপির এসব কান্ড নিয়ে তৃণমূলের মাথা ব্যাথা নেই। যার নামে ফ্লেক্স নিয়ে এতকান্ড, সেই কার্তিক পাল কালিয়াগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। অমিত সাহা ও গৌরাঙ্গ দাস বলেন সৌজন্যে তাদের নাম দিয়ে লাগানো এই ফ্লেক্স কান্ডের পেছনে বিরাট চক্রান্ত রয়েছে। আমরা পুলিশের কাছে আবেদন করছি চক্রান্তকারীদের চিহ্নিত করার জন্য। কালিয়াগঞ্জে কার্তিকচন্দ্র পালের নামে লাগানো এই ফ্লেক্স খোলার কাজ শুরু করে বিজেপি নেতৃত্ব শনিবার সকাল গড়াতেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *