দাবি আদায়ে নবান্ন ঘেরাওয়ের হুঁশিয়ারি পশ্চিমবঙ্গ প্রাণী সম্পদ বিকাশ কর্মী ইউনিয়নের

সাথী দাস, পুরুলিয়া, ৯ জানুয়ারি: ভোটের আগে নিজেদের বেতন কাঠামোতে অন্তর্ভুক্ত করার দাবিতে আন্দোলন শুরু করল পশ্চিমবঙ্গ প্রাণী সম্পদ বিকাশ কর্মী ইউনিয়ন। রাজ্য প্রশাসনের উপর চাপ তৈরি করতেই আন্দোলন নবান্নে পৌঁছানোর হুমকি দিলেন সংগঠনের রাজ্য নেতৃত্ব।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতিশ্রুতিকে মনে করিয়ে বেতন তাদের কাঠামোতে যুক্ত করার দাবিতে পশ্চিমবঙ্গ প্রাণী সম্পদ বিকাশ কর্মী ইউনিয়ন আওয়াজ তুলল। সংগঠনের পুরুলিয়া জেলা কমিটির উদ্যোগে স্থানীয় হরিপদ সাহিত্য মন্দিরে অনুষ্ঠিত হল সম্মেলন। আন্দোলরত কর্মীদের দাবি, গত বছর ২৩ জানুয়ারি খাতড়া জনসভায় মুখ্যমন্ত্রী প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন রাজ্যের ১৪ হাজার কর্মরত প্রাণী সম্পদ বিকাশ কর্মীকে উৎসাহ ভাতার বদলে মাস মাইনের করা হবে। সেই প্রতিশ্রুতির এক বছর পেরিয়ে গেলেও   আজ পর্যন্ত সেই প্রতিশ্রুতি পূরণ হয়নি। শনিবার এর প্রতিবাদে সম্মেলন করলেন তাঁরা। কর্মীদের অভিযোগ, মাসে মাত্র ১৫০০ টাকায় উৎসাহ ভাতার বিনিময়ে ২৪ ঘণ্টা পরিষেবা দিতে হয় তাদের। অথচ, এই টাকায় তাদের সংসার চালানো দায় হয়ে পড়েছে। অবিলম্বে তাদের এই দাবি না মানা হলে আগামী দিনে নবান্ন ঘেরাওয়ের হুমকি দেন রাজ্য সংগঠনের কার্যকরী সভাপতি সৌমিত্র মন্ডল। পুরুলিয়ায় সম্মেলনে যোগ দিতে এসে তিনি বলেন, “বাঁকুড়ার খাতড়ার জনসভায় মুখ্যমন্ত্রী প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। সেই প্রতিশ্রুতি না রাখলে তিনি মরে যাবেন বলেছিলেন উত্তর ২৪ পরগনার ঠাকুর নগরের জনসভায়। এখন যা পরিস্থিতি তাতে তিনি মরবেন না, আগামী দিনে আমরা মরে যাব। তাই, এখান থেকেই আমরা বৃহত্তর আন্দোলনের সংকল্প নিলাম। কলকাতার রাজপথ কাঁপিয়ে দেব এবং নবান্ন ঘেরাও আন্দোলন করব।”

এদিনের সম্মেলনে জেলার প্রায় ৭৫০ জন প্রতিনিধি ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন রাজ্য স্তরের সংগঠক, পুরুলিয়া জেলা সভাপতি উমাকান্ত মাহাতো প্রমুখ নেতৃত্ব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *