রায়গঞ্জের গোয়ালপাড়া গ্রামে বিজেপি সমর্থকদের মারধর, বাড়ি ভাঙ্গচুর, নিখোঁজ ৩

স্বরূপ দত্ত, আমাদের ভারত, উত্তর দিনাজপুর, ৩১ ডিসেম্বর: বিজেপি করার কারণে এলাকার সাতটি পরিবারের বাড়ি ভাঙ্গচুর, লুটপাট, মারধর করার অভিযোগ উঠল তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। আহত এক মহিলা সহ দুজন বিজেপি সমর্থককে রায়গঞ্জ গভর্মেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর দিনাজপুর জেলার রায়গঞ্জ থানার বরুয়া গ্রামপঞ্চায়েতের গোয়ালপাড়া গ্রামে। ঘটনার পর থেকে এলাকার দুজন বিজেপি সমর্থক নিখোঁজ বলে জানিয়েছেন আক্রান্ত পরিবারের লোকজন। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। অভিযোগ অস্বীকার স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্বের। ঘটনায় পুলিশ একজনকে গ্রেফতার করেছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ।

রায়গঞ্জ থানার বরুয়া গ্রামপঞ্চায়েতের দক্ষিণ গোয়ালপাড়া এলাকার সাতটি পরিবার বিজেপির সমর্থক। দীর্ঘ ছ’মাস ধরে স্থানীয় তৃণমূল নেতা বাপ্পা অধিকারী’র নেতৃত্বে তাদের উপর অত্যাচার চালানো হচ্ছে বলে অভিযোগ৷ গত কয়েকদিন আগে এক বিজেপি মহিলা সমর্থককে রাস্তায় আটকে ব্যাপক মারধর করে এবং বিজেপি ছেড়ে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেওয়ার জন্য চাপ দিতে থাকে। আক্রান্ত বিজেপি সমর্থকদের পরিবারের উষা রায় নামে এক মহিলা অভিযোগ করেন, বাপ্পা অধিকারী’র নেতৃত্বে একদল দুষ্কৃতী বুধবার রাতে তাদের উপরে হামলা চালায়। বাড়িঘর ভাঙ্গচুর করে, লুটপাট চালায়৷ ব্যাপক মারধর করে। দুজন বিজেপি সমর্থক নিখোঁজ রয়েছেন। রিনা রায়, বাদল রায়, বিজয় রায় নামে তিনজন বিজেপি সমর্থক গুরুতর জখম হয়ে রায়গঞ্জ গভর্মেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তাদের আরও অভিযোগ, কোনও কাজ তো করেই দেয়না বরং বিজেপি করার কারণে তাদের উপর চরম অত্যাচার হামলা চালাচ্ছে স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেস।

যদিও তাদের বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দিয়েছেন স্থানীয় তৃণমূল নেতা বাপ্পা অধিকারী। তিনি বলেন, ওই পরিবারগুলির বিরুদ্ধে এলাকায় মাদকের কারবার ও অসামাজিক কার্যকলাপের অভিযোগ ছিল। গ্রামের মানুষ তাদের উপর ক্ষিপ্ত ছিল। গতকাল রাতে গ্রামের ক্ষুদ্ধ মানুষজন তাদের বাড়িঘর ভাঙ্গচুর করেছে। এই ঘটনার সাথে তৃণমূল কংগ্রেসের কোনও যোগ নেই। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *